অর্থনীতিবাদ শ্রমিক আন্দোলনে রাজনীতি বাদ দিয়ে আর্থিক দাবি আদায়ের প্রবণতা

অর্থনীতিবাদ

অর্থনীতিবাদ (ইংরেজি: Economism) বলে আখ্যায়িত করা হয় শ্রমিক শ্রেণি পরিচালিত সাম্যবাদী আন্দোলনে রাজনৈতিক সংগ্রাম পরিত্যাগ করে আংশিক আর্থিক দাবি আদায়ের প্রবণতাকে। যখন কোনো কমিউনিস্ট পার্টি রাজনৈতিক সংগ্রামে ঢিলেঢালা ভাব প্রদর্শন করে আর্থিক উন্নতির দাবি তোলে তখন অর্থনীতিবাদ প্রকাশ পায়।[১] বুর্জোয়া সংস্কারবাদের সাথে অর্থনীতিবাদ প্রায়ই একাকার হয়ে যায়। তবে এ দু’য়ের মাঝে পার্থক্য রয়েছে। মার্কসের যুগে … Read more

পুঁজিপতিরা কীভাবে তাদের মুনাফা গোপন করে

পুঁজিপতিরা কীভাবে মুনাফা গোপন করে

নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি বিবেচনা  নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে তারা কত কথা বলে! এবং কত কম গুরুত্ব আছে এটার। কীভাবে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার জন্য অবলম্বন করে সাধারণ বাক্যাংশ, আড়ম্বরপূর্ণ বক্তৃতা, জাঁকজমকপূর্ণ ‘প্রকল্প’ যেগুলির অভিলক্ষ চিরকালের মতো শুধু প্রকল্পই থেকে যাওয়ার। এখন বিষয়টি হলো যে যদি না বাণিজ্যসংক্রান্ত এবং ব্যাঙ্কের গোপনীয়তা রহিত করা হয়, যদি না অবিলম্বে আইন করে … Read more

সাম্রাজ্যবাদ, পুঁজিবাদের সর্বোচ্চ পর্যায় লেনিন রচিত পুঁজিবাদের বিশ্লেষণমূলক গ্রন্থ

সাম্রাজ্যবাদ, পুঁজিবাদের সর্বোচ্চ পর্যায়

সাম্রাজ্যবাদ, পুঁজিবাদের সর্বোচ্চ পর্যায় বা ‘ইম্পেরিয়ালিজম, দ্য হাইয়েস্ট স্টেজ অব ক্যাপিটালিজম’ হচ্ছে পুঁজিবাদের ঊনবিংশ এবং বিংশ শতকের বিকাশের বিশ্লেষণমূলক গ্রন্থ যেটি ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিন ১৯১৬ সনে রচনা করেন। ১৯১৭ সনের রুশ বিপ্লবের প্রাক্কালে বিপ্লবী আন্দোলনের তাত্ত্বিক নেতৃত্ব দানের জন্য লেনিন তাঁর এই গ্রন্থে রাশিয়ার সমাজতান্ত্রিক সংগ্রাম এবং আন্তর্জাতিক আন্দোলনসমূহের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে কার্ল মার্কস এবং ফ্রিডরিখ … Read more

লেনিনের বই রাশিয়ায় পুঁজিবাদের বিকাশ প্রসঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা

রাশিয়ায় পুঁজিবাদের বিকাশ বই

রাশিয়ায় পুঁজিবাদের বিকাশ (রুশ: Развитие капитализма в России) হচ্ছে ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিন লিখিত ১৮৯৯ সালে প্রকাশিত একটি বই। বইটি লেনিনের নির্বাসনকালে লেখা হয় এবং লেনিন এই কাজ তিন বছরের অধিককাল ধরে চালান।[১] বিপ্লবী ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিনকে ১৮৯৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি সাইবেরিয়ায় তিন বছরের জন্য নির্বাসনের দণ্ডাজ্ঞা দেয়া হয়। ১৮৯৭ সালের মে মাসে তিনি মিনুসিনস্ক গ্রামে … Read more

কৌটিল্যের অর্থশাস্ত্র হচ্ছে হিন্দু রাষ্ট্রচিন্তা সম্পর্কে রচিত একটি প্রাচীন গ্রন্থ

অর্থশাস্ত্র

অর্থশাস্ত্র (সংস্কৃত: अर्थशास्त्र) হচ্ছে কৌটিল্য রচিত হিন্দু রাষ্ট্রচিন্তা সম্পর্কে একটি প্রাচীন গ্রন্থ। বিষ্ণুগুপ্ত বা কৌটিল্য নামে পরিচিত তক্ষশিলার অধিবাসী জনৈক ব্রাহ্মণকে এই গ্রন্থের রচয়িতা হিসেবে ধরা হয়। তিনি চাণক্য নামেও পরিচিত। বিশাখদত্ত রচিত মুদ্রারাক্ষস থেকে জানা যায় যে তিনি মগধে মৌর্যসম্রাট চন্দ্রগুপ্তের (৩২২-২১৮ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) প্রধান মন্ত্রী ছিলেন। গ্রন্থটির রচনাকাল এবং রচয়িতা কৌটিল্য সম্পর্কে মতভেদ আছে।[১] … Read more

উৎপাদনের পুঁজিবাদী পদ্ধতি হচ্ছে পুঁজিবাদী সমাজে উৎপাদন ও বণ্টনের পদ্ধতি

উৎপাদনের পুঁজিবাদী পদ্ধতি

কার্ল মার্কসের রাজনৈতিক অর্থনীতির সমালোচনা এবং পরবর্তী মার্কসীয় বিশ্লেষণে, উৎপাদনের পুঁজিবাদী পদ্ধতি (ইংরেজি: Capitalist mode of production) দিয়ে পুঁজিবাদী সমাজের মধ্যে উৎপাদন এবং বণ্টনকে সংগঠিত করার পদ্ধতিগুলিকে বোঝায়। সামন্ত-ভূমিদাস প্রথার অভ্যন্তরেই পুঁজিবাদের উদ্ভব। পুঁজির সবচেয়ে প্রাচীন রূপ হলো ব্যবসায়ী ও মহাজনী পুঁজি [commercial and usurer capital]। পুরানো স্বাভাবিক অর্থনীতির মধ্যে যতই বিনিময়-প্রথার বিকাশ ঘটতে থাকে, … Read more

সরল পণ্য উৎপাদন হচ্ছে ফ্রিডরিখ এঙ্গেলস কর্তৃক বানানো একটি শব্দ

সরল পণ্য উৎপাদন

সরল পণ্য উৎপাদন, (ইংরেজি: Simple commodity production) যা ক্ষুদে পণ্য উৎপাদন হিসাবেও পরিচিত, হচ্ছে ফ্রিডরিখ এঙ্গেলস কর্তৃক বানানো উৎপাদনের ক্রিয়াকলাপকে বর্ণনা করার জন্য তৈরি করা একটি শব্দ যাকে কার্ল মার্কস পণ্যের “সাধারণ বিনিময়” বলেছিলেন, যেখানে স্বাধীন উৎপাদকগণ তাদের নিজস্ব পণ্য বেচাকেনা করে। আমরা দেখেছি যে, মানুষের ইতিহাসের অতি প্রাচীনকালেই বিনিময়-প্রথার উদ্ভব ঘটে। সমাজে শ্রম-বিভাগের প্রথম … Read more

সামন্তবাদ হচ্ছে দাসযুগের পরে মানুষ কর্তৃক মানুষের উপর শোষণের এক রূপ

সামন্তবাদ

সামন্তবাদ বা সামন্ততন্ত্র (ইংরেজি: Feudalism) হচ্ছে দাসমালিকদের যুগের পর, দাস-প্রথার স্থলে মানুষ কর্তৃক মানুষের উপর শোষণের এক সামাজিক আর্থিক নতুন রূপ। সামন্তবাদ সমগ্র মধ্যযুগ ধরে প্রচলিত ছিল আর এটির বিকাশের সর্বশেষ স্তর ছিল ভূমিদাস-প্রথা। সামন্তবাদ তুলনামূলকভাবে বিকাশের এক দীর্ঘ প্রক্রিয়ার অধীনস্থ ছিল। সামন্তবাদী ব্যবস্থায় বিশাল কৃষক সাধারণ সামন্ত-ভূম্যধিকারীদের (barons) এক ক্ষুদ্র দল দ্বারা শোষিত হতো। … Read more

দাস সমাজ হচ্ছে শোষণমূলক সমাজ পদ্ধতির একটি প্রাক-পুঁজিবাদী রূপ

দাস সমাজ

দাস সমাজ বা দাস-মালিকদের সমাজ বা দাসত্ব (ইংরেজি: Slavery) হচ্ছে শোষণমূলক সমাজ পদ্ধতির একটি প্রাক-পুঁজিবাদী রূপ। আদিম সাম্যবাদী সমাজের অবক্ষয়ের সাথে সমাজে শোষক ও শোষিতের বিভক্তি দেখা দেয়। এমন কিছু লোকের আবির্ভাব ঘটে যারা অন্যের শ্রমের ফল ভোগ করে বেঁচে থাকে। এক শ্রেণি কর্তৃক অপর শ্রেণির উপর শোষণ – এটাই শ্রেণি-বিভক্ত সমাজের বিকাশের বিভিন্ন স্তরকে … Read more

শ্রমের সামাজিক বিভাগ হচ্ছে বিশেষীকৃত পণ্য উৎপাদনের কাঠামোগত ভিত্তি

শ্রমের সামাজিক বিভাগ

শ্রমের সামাজিক বিভাগ (ইংরেজি: Social division of labor) হচ্ছে শিল্প, খামার এবং শ্রমিকদের পেশা অথবা কাজের প্রযুক্তিগত বিভাগের মধ্যে বিভক্ত বিশেষীকৃত পণ্য উত্পাদনের সামাজিক কাঠামোগত ভিত্তি। আদিম যুগে ক্রমবিকাশের পথ ধরে মানুষ অত্যন্ত ধীর গতিতে অগ্রসর হচ্ছিলো, কিন্তু তা সত্ত্বেও অগ্রগমন ঠিকই ঘটছিলো। মানব সমাজ কোনো সময়ই স্থাণু অবস্থায় বসে থাকেনি। হাতিয়ার-পত্র ধীর গতিতে, কিন্তু … Read more

You cannot copy content of this page