শাহজাহান আলী বাংলাদেশের বামপন্থী সুবিধাবাদী সংশোধনবাদী রাজনীতিবিদ

শাহজাহান আলী ( ১৯৬০? – ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯) ছিলেন সংগঠক, ব্যবসায়ী, বামপন্থী প্রগতিশীল ধারার রাজনীতিক এবং বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের সদস্য। তিনি ১৯৮৬ সালে এই সংগঠনের সদস্যপদ লাভ করেন। বাসদকে যদি আমরা সুবিধাবাদী সংশোধনবাদী রাজনীতির ঝান্ডাধারী বলি তবে, শাহজাহান আলী ছিলেন সুবিধাবাদ সংশোধনবাদের পক্ষের একজন রাজনীতিবিদ। ব্যক্তিগত জীবনে একজন ব্যবসায়ী, সমাজসেবী, রাজনৈতিক কর্মী, সংগঠক ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে তিনি যুক্ত ছিলেন।

শাহজাহান আলী বিশ শতকের আশির দশকে স্বৈরাচার এরশাদবিরোধী আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি বাংলাদেশের বামপন্থী রাজনীতিতে কুষ্টিয়া জেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। ২০১০ সালের পরে তিনি চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র কুষ্টিয়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি ও বাসদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

১৯৮৬ সালে বাসদের সদস্য পদ গ্রহণ করার পর থেকে আমৃত্যু বাসদের সাথে একাত্ম ছিলেন। গত চার দশক তিনি সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলন, গণ আদালত, গণ জাগরণ মঞ্চ, রেল রক্ষা আন্দোলন, সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী আন্দোলন, দ্বি-দলীয় বৃত্তের বাইরে বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প রাজনীতি গড়ার আন্দোলন ও সর্বোপরি সমাজতন্ত্র-সাম্যবাদ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে নিষ্ঠার সাথে অংশ নিয়েছেন। এছাড়া বাসদের সাংস্কৃতিক সংগঠন চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সংগঠক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি কুষ্টিয়া হাইস্কুলের পরিচালনা পরিষদের সদস্যের দায়িত্বও পালন করেন। সমাজের নানা ক্ষেত্রে বন্ধু বৎসল বিচরণকারী শাজাহান আলী নিপীড়িত জনগণের সহায়তায় ছিলেন উদার।

শাহজাহান আলী ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ তারিখ সোমবার দুপুর ১টার সময় কোলকাতা টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসকদের পরামর্শে নিজে বাড়িতে ফেরার প্রস্তুতিকালে মারা যান। তিনি ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে উন্নত চিকিৎসার জন্য কলকাতা গিয়েছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য মারণব্যাধি ক্যান্সার দ্বারা আক্রান্ত ছিলেন। তার বাড়ি ছিলো কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়া শাপলা চত্বরে। তার পিতার নাম নিজাম উদ্দিন এবং তিনি পিতার জ্যেষ্ঠ পূত্র।

আরো পড়ুন:  স্মৃতি জুড়ে সীমান্তের বেদনা, স্বরূপে মোড়ানো নিজস্ব ঐতিহ্য

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, কুষ্টিয়া জেলা শাখার আহ্বায়ক শফিউর রহমান শফি ও সদস্য সচিব মাসুদ হাসান শাহজাহান আলী’র মৃত্যুতে গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছিলেন। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কুষ্টিয়া জেলা শাখার আহ্বায়ক লাবনী সুলতানা ও সদস্য সচিব তাসমিন নাহার এক যৌথ বিবৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ করে তাঁর এই অকাল মৃত্যুতে একজন সংগঠক হারালো বলে মনে করেন। এছাড়া সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কুষ্টিয়া, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি কুষ্টিয়া, গণজাগরণ মঞ্চ কুষ্টিয়া, শিল্পকলা একাডেমী কুষ্টিয়া, জাসদ কুষ্টিয়া জেলা শাখাসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান শাজাহান আলী’র মৃত্যুতে শোকসন্তপ্ত পরিবারের উদ্দেশ্যে গভীর শোকবার্তা জানিয়েছেন।

বাম প্রগতিশীল আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক শাজাহান আলীর স্মরণে একটি নাগরিক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শনিবার বিকেল ৪টায় কুষ্টিয়া পৌরসভা বিজয় উল্লাস চত্বরে। বাসদ কুষ্টিয়া জেলার আহ্বায়ক শফিউর রহমান শফির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই নাগরিক শোক সভায় বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, স্কপ নেতা ওসমান আলী ও সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পদাক রাজেকুজ্জামান রতন ছাড়াও জেলার বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রেখেছিলেন।[১]

টিকা:

১. লেখাটি ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে রচিত এবং রোদ্দুরে ডট কমে প্রকাশিত হয়। সেখান থেকে ঈষৎ পরিবর্তিত আকারে ফুলকিবাজে প্রকাশ করা হলো।

Leave a Comment

error: Content is protected !!