কাজী ফারুক আহাম্মদ বাংলাদেশের একজন অধ্যাপক ও শিক্ষাবিদ

কাজী ফারুক আহাম্মদ (ইংরেজি: Kazi Faruq Ahmad) বাংলাদেশের একজন অধ্যাপক, শিক্ষাবিদ এবং উদার দৃষ্টিভঙ্গির ব্যক্তিত্ব। তিনি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, বৈচিত্র্যের ভেতরে ঐক্য, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও উদারতাবাদে বিশ্বাসী একজন পরমতসহিষ্ণু আধুনিক মতাদর্শিক মানুষ হিসেবে নিজেকে তুলে ধরেন। শৈশবে পিতাকে হারালেও তিনি শতবর্ষী মাকে নিয়ে চল্লিশাধিক পারিবারিক সদস্যের সঙ্গে যৌথ পরিবার পরিচালনা করছেন।

কাজী ফারুক আহাম্মদ গাজিপুর জেলার কালীগঞ্জ থানার পৈলানপুরে ২৬ মার্চ, ১৯৬৬ সালে  জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মো. সুরুজ মিয়া ও মাতার নাম মজিরুন বেগম। ছয় ভাইয়ের মধ্যে তিনি পঞ্চম। তিনি খৈপড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৯৭৫ সালে পঞ্চম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হন। তিনি খৈপড়া উচ্চ বিদ্যালয় হতে ১৯৭৮ সালে অষ্টম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হন।

তিনি ১৯৮১ সালে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কালীগঞ্জ রাজেন্দ্র নারায়ণ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান শাখায় প্রথম বিভাগে এস এস সি পাস করেন। তিনি ১৯৮৪ সালে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে কালীগঞ্জ শ্রমিক কলেজ থেকে মানবিক শখায় দ্বিতীয় বিভাগে এইচ এস সি পাস করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে ১৯৮৭ সালে সমাজকল্যাণ বিষয়ে সম্মানসহ দ্বিতীয় শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হন এবং একই বিশ্ববিদ্যালয় হতে একই বিষয়ে ১৯৮৮ সালে দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতকোত্তর উত্তীর্ণ হন।

কর্মজীবন

কাজী ফারুক আহাম্মদ বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে ১৯৮৫-৮৬ সালে বাসদ ছাত্রলীগের সাথে জড়িত ছিলেন। ২০ অক্টোবর ১৯৯৩ সালে ১৪তম বিসিএসের মাধ্যমে সরকারি চাকুরিতে প্রভাষক হিসেবে ফেনীর পরশুরাম কলেজে যোগ দেন। এরপর তিনি ফেনী, কুমিল্লা, গৌরীপুর, গফরগাঁও, আনন্দমোহন কলেজে প্রভাষক ও সহকারী অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২৩ মে ২০১৭ তারিখে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে নেত্রকোনা সরকারি মহিলা কলেজে যোগদান করেন এবং একই প্রতিষ্ঠানে ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে উপাধ্যক্ষ পদে যোগদান করেন। ৪ আগস্ট ২০২০ তারিখে অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পান এবং ৯ আগস্ট ২০২১ তারিখে অধ্যক্ষ হিসেবে গফরগাঁও সরকারি কলেজে যোগদান করেন।

আরো পড়ুন:  আমাদের জীবনে আলোকদীপ্ত শাহেরা খাতুনের অবদান

কাজী ফারুক আহাম্মদ ২০১৫ সালে নিজ গ্রামে তার মায়ের নামে পৈলানপুর মজিরুন বেগম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন। এছাড়াও তিনি তার এলাকায় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন। গফরগাঁও সরকারি কলেজের অবকাঠামোগত উন্নয়ন সংঘটনে তার অবদান রয়েছে। বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে তার গত তিন দশকের ভূমিকা প্রশংসনীয়।

Leave a Comment

error: Content is protected !!