অনিল ভট্টাচার্য ছিলেন বিশতকের গীতিকার, সুরকার

অনিল ভট্টাচার্য (৯ আগস্ট ১৯০৮ – ১৪ ডিসেম্বর ১৯৪৪) আধুনিক বাংলা গানের জনপ্রিয় গীতিকার। তিনি জন্মেছিলেন উত্তর কলকাতায়। ছোটবেলা থেকেই মেধাবী ছিলেন। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পড়ালেখা করলেও শেষ পর্যন্ত সংগীতচর্চায় মনোযোগ দেন। ৩৬ বছরের জীবনকালে তিনি কয়েকশত গান রচনা করেছিলেন। সুরালো কণ্ঠ হওয়ায় নিজেই গান গেয়ে রেকর্ডও করেছিলেন।[১]

তাঁর অন্য দুই ভাই হচ্ছেন সুরকার নির্মল ভট্টাচার্য এবং ধারাভাষ্যকার কমল ভট্টাচার্য। ওঁরা মোহনলাল স্ট্রিটের বাড়িতেই থাকতেন। তাঁদের বাড়িতে হেমন্ত মুখোপাধ্যায় থেকে সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়, শ্যামল মিত্র থেকে প্রতিমা বন্দ্যোপাধ্যায়, ধনঞ্জয়-পান্নালাল, সতীনাথ-উৎপলা, মানবেন্দ্র মুখোপাধ্যায়, নির্মলা মিশ্র আসতেন! বাড়িতে হরহামেশাই গানের আসর বসত।[২]

জন্ম ও শিক্ষাজীবন:

অনিল ভট্টাচার্য জন্মেছেন ১৯০৮ সালের ৯ আগস্ট উত্তর কলকাতায়। মেধাবী ছাত্র হিসাবে স্কটিশ চার্চ স্কুল ও কলেজে যশস্বী ছিলেন। ১৯২৯ সালে সেখান থেকে তিনি সসম্মানে বিজ্ঞানে স্নাতক শেষ করেন।

অনিল ভট্টাচার্য-এর সংগীত জীবন:

তিনি সারাজীবন কোনো জীবিকার দাসত্ব করেননি। ছিলেন অকৃতদার ও স্বল্পজীবী। সংগীত ছিল সারাজীবনে তার প্রথম প্রেম। লেখাপড়ার সঙ্গে সঙ্গে গানবাজনার অনুশীলন ছিল তার। এছাড়াও ভালো গাইতে পারতেন। নিজের লেখা ও সুর দেওয়া কয়েকটি গান নিজেই গেয়েছিলেন রেকর্ডে।

বাংলার বহু প্রখ্যাত শিল্পী অনিল ভট্টাচার্যের কথা ও সুরে শতাধিক গান রেকর্ড করেছেন। ছত্রিশ বছর বয়সে তার অকাল প্রয়াণের পর সুধীরলাল চক্রবর্তী, নির্মল ভট্টাচার্য প্রভৃতির সুরে তার অনেক গান রেকর্ড হয়েছে।

একসময়ে শিশিরকুমার ইনষ্টিটিউটের নাট্য সংসর্গে তিনি জড়িয়ে পড়েন। ক্রমে হয়ে ওঠেন নাট্যকার, গীতকার, সুরকার, পরিচালক এমনকি অভিনেতা। ১৯৪৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর তিনি প্রয়াত হন।

সংকলনগ্রন্থ:

অনিলের জীবনকাল ছিল স্বপ্ল। এরমাঝে সঙ্গীত জগতে অনেকখানি জায়গা করেনিয়েছিলেন। তাঁর দুখানি গীত-সংকলন আছে। একশো পঞ্চাশটি গান নিয়ে ‘আলো ঝলমল’ এবং তিনশো গান নিয়ে ‘মাধবীরাতে’।[৩]

আরো পড়ুন:  মহাকবি কালিদাস ছিলেন একজন ধ্রুপদী সংস্কৃত লেখক

তথ্যসুত্র:

১. দোলন প্রভা, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ “অনিল ভট্টাচার্য আধুনিক বাংলা গানের জনপ্রিয় গীতিকার”, রোদ্দুরে ডট কম, ঢাকা, ইউআরএলঃ https://www.roddure.com/biography/anil-bhattacharya/

২. সুপ্রিয় মুখোপাধ্যায়, আনন্দবাজার, ৩১ জানুয়ারি ২০১৫, https://www.anandabazar.com/supplementary/patrika/ইড-ন-উদ-য-ন-থ-ক-বলছ-1.109464

৩. সুধীর চক্রবর্তী সম্পাদিত(১ বৈশাখ ১৩৯৪)। আধুনিক বাংলা গান। প্যাপিরাস, কলকাতা। পৃষ্ঠা: ১৬৬-১৬৭।

Leave a Comment

error: Content is protected !!