মানবতাবাদ মানব সমাজের শ্রেণিবিভক্তিকে দেখে না

মানববাদ

মানবতাবাদ বা মানববাদ (ইংরেজি: Humanism) হচ্ছে একটি দার্শনিক অবস্থান যা মানুষের ব্যক্তি এবং সামাজিক সম্ভাবনা এবং সংস্থার উপর জোর দেয়। এটি মানুষকে গুরুতর নৈতিক এবং দার্শনিক অনুসন্ধানের সূচনা বিন্দু হিসাবে বিবেচনা করে। মানবতাবাদ বলতে সাধারণভাবে সমগ্র মানব-সমাজকে এককভাবে দেখা, তার শ্রেণি-বিভক্তিকে না দেখা এবং দুঃখী মানুষের দুঃখ-দুর্দশা, অভাব-অনটনে ব্যথিত হওয়া, দুঃখ প্রকাশ করা, সাহায্য-সহযোগিতা করাকে … Read more

উমা সেন ছিলেন ব্রিটিশ বিরোধী নারী বিপ্লবী

উমা সেন ছিলেন ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন ব্যক্তিত্ব ও অগ্নিযুগের নারী বিপ্লবী। কিশোরী বয়স থেকে পরিবারের মাঝে থেকেই রাজনৈতিক বিষয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠেন। পরিবার ও শিক্ষা উমা সেন (দাশগুপ্ত) ১৯১৬ সালের ১৮ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেছিলেন মেদিনীপুর জেলায়। তার পিতা সত্যেন্দ্রনাথ সেন ও মাতা বিনয়লতা সেন। তার দাদা ছিলেন বিপ্লবী অমরেন্দ্রনাথ সেন। বাবা সরকারী চাকরি করতেন। ১৯৪৪ … Read more

উজ্জ্বলা মজুমদার সশস্ত্র বিপ্লবী নারী ও সমাজসেবী

উজ্জ্বলা মজুমদার ছিলেন একজন বাঙালি সশস্ত্র বিপ্লবী নারী ও সমাজকর্মী। ছোটবেলা থেকেই বাবার কাছ থেকে রাজনৈতিক জ্ঞান পেয়েছিলেন। জমিদার বাড়ির মেয়ে হওয়ার পরেও অন্যের দুঃখে দুঃখী হয়েছেন। ভারতকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করার জন্য জীবন বাজি রেখেছিলেন।   উজ্জ্বলা মজুমদার-এর শৈশবজীবন ১৯১৪ সালের ২১ নভেম্বর ঢাকা শহরে উজ্জ্বলা মজুমদার জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা সুরেশচন্দ্র মজুমদার। ঢাকা … Read more

ইলা সেন ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের বিপ্লবী

ইলা সেন ছোটবেলা থেকে বাবার চাকরিসূত্রে দেশের বাইরে ছিলো। তারপরও পরাধীনর শেকলে বাঁধা শাসনব্যবস্থা ভাঙতে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন তিনি। তিনি কলেজে পড়তে এসে দেখেন ভারতে জাতীয় আন্দোলনের খরস্রোত তীরবেগে বয়ে চলেছে। তীরে দাঁড়িয়ে নিজেকে দূরে রেখে শুধু লক্ষ্য করে যাবেন সে-মেয়ে ইলা ছিলেন না। আন্দোলনের স্রোতের মধ্যে নিজেকে বিপন্ন করেও, লাফিয়ে পড়ে তবে তিনি সার্থক বোধ … Read more

অর্চনা দত্ত জগতের আনন্দপথে হেঁটেছেন

অর্চনা দত্ত

অর্চনা দত্ত জগতের আনন্দপথে বিপুল আগ্রহ নিয়ে দীর্ঘ ও ঋজু পায়ে হেঁটেছেন। এই হাঁটা কেবল নিজের জন্য ছিল না। আশপাশের সমাজ ও মানুষের দায় নিজের কাঁধে নিতে শিখেছিলেন তিনি। এই দায় বহন করতে গিয়ে কখনো ভয়ে পিছপা হননি। তিনি শান্তিপূর্ণ একটি সমাজ চান; এই চাওয়ায় তাঁর কোনো আত্মস্বার্থ নেই। নিজে বাঁচা এবং অন্যকে বাঁচতে দেয়ার … Read more

বিনোদিনী দাসী একজন জনপ্রিয়, দক্ষ, লড়াকু অভিনেত্রী

বিনোদিনী দাসী উনিশ শতকের জনপ্রিয়, দক্ষ, শক্তিশালী ও পুরুষতান্ত্রিক সমাজে লড়ায় করে গড়ে ওঠা অভিনেত্রী। তিনি যখন থিয়েটারে আসেন সেই সময় পুরুষেরা নারীর ভূমিকায় অভিনয় করতো। বিনোদিনী নিজের অবস্থান তৈরির জন্য সামন্তীয় সমাজের নানা প্রতিবন্ধকাতাকে তুচ্ছ করে এগিয়ে চলেছেন। নিজের অধিকারের জন্য পুরুষতান্ত্রিক সমাজের দ্বারা বারবার ক্রুশবিদ্ধ হয়েছেন কিন্তু হার মানেন নি। শৈশব থেকেই তিনি … Read more

অমর্ত্য সেন হচ্ছেন ভারতে শৌচাগার উন্নয়নের অর্থনীতিবিদ

অমর্ত্য সেন

অমর্ত্য সেন (ইংরেজি: Amartya Sen; জন্ম: ৩ নভেম্বর ১৯৩৩) হচ্ছেন ভারতের শৌচাগার, অবকাঠামো ও পরিবার উন্নয়নের অর্থনীতিবিদ। ভারত: উন্নয়ন ও বঞ্চনা বইয়ে অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের বুকভরা দুঃখ এটা যে ভারতীয়রা এখনো শৌচাগার বা ল্যাট্রিন ব্যবহার করতে পারছে না। তারা গ্রামের উন্মুক্ত ময়দানে শৌচকর্ম করতে প্রতিদিন ভোরবেলা লোটা নিয়ে বেরিয়ে পড়ে। তার বেদনাভারাক্রান্ত হৃদয় মুচড়ে উঠে … Read more

বিশ্বজুড়ে মার্কসবাদ, মুক্তি কোন পথে

বিশ্বজুড়ে মার্কসবাদ

মার্কসবাদের উদ্ভব উনিশ শতকে হলেও বিশ শতকে এই মতবাদের প্রায়োগিক দিক জাজ্বল্যমানরূপে দেখা দেয়। ১৯১৭ সালের রুশ বিপ্লবের পর একে একে ষোলটি রাষ্ট্র, পৃথিবীর জনসংখ্যার প্রায় এক তৃতীয়াংশ মার্কসবাদী বিশ্বের বাস্তব উদাহরণ হয়ে ওঠে। সোভিয়েত ইউনিয়ন, পোল্যান্ড, পূর্ব জার্মানি, হাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া, চেকশ্লোভাকিয়া, রুমানিয়া, যুগোশ্লাভিয়া, আলবেনিয়া, চীন, উত্তর কোরিয়া, মঙ্গোলিয়া, ভিয়েতনাম, লাওস, কম্বোডিয়া, কিউবা সমাজতন্ত্র অভিমুখী … Read more

বাংলাদেশে মার্কসবাদ চর্চা

বাংলাদেশে মার্কসবাদ

বাংলাদেশে মার্কসবাদ প্রভাব বিস্তার করতে আরম্ভ করে বিশ শতকের দ্বিতীয় দশক থেকে। বিশ শতকের শুরু থেকেই বিপ্লবী অনুশীলন ও যুগান্তর দলের সদস্যবৃন্দের ভেতরে মার্কসবাদী চিন্তা খুব ক্ষুদ্র আকারে কাজ করতে থাকে। ১৯২০ সালের ১৭ অক্টোবর কমিউনিস্ট ইন্টারন্যাশনালের দ্বিতীয় কংগ্রেসের পর তাসখন্দে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি প্রতিষ্ঠিত হলে বাঙলায় তার ঢেউ লাগে। ১৯২৫ সালের ভেতরেই দৈনিক সংবাদপত্রগুলির … Read more

সাম্যবাদ মানুষের সর্বাঙ্গীণ বিকাশের সর্বোচ্চ সামাজিক স্তর

সাম্যবাদ সম্পর্কে

কার্ল মার্কস ও ফ্রিডরিখ এঙ্গেলস সমাজতন্ত্র ও সাম্যবাদের স্পষ্ট পার্থক্যরেখা আঁকেননি, এমনকি তাঁরা সমাজতন্ত্র ও সাম্যবাদের জন্য কোনো রকমের কল্পনারও আশ্রয় নেননি। তাঁরা সমাজতন্ত্রকে বহুক্ষেত্রে সাম্যবাদ হিসেবেই দেখেছেন। সমাজতন্ত্রকে মধ্যবর্তী একটা উৎপাদনব্যবস্থা হিসেবে দেখেননি। তাঁরা দেখিয়েছেন যে পুঁজিবাদের স্বাভাবিক অনিবার্য উত্তরণ ঘটবে এবং পুঁজিবাদকে বাতিল করে সেই প্রক্রিয়াকে পরিচালিত করবে প্রলেতারিয়েত শ্রেণি। উৎপাদন বৃদ্ধি পেলে … Read more

error: Content is protected !!